Breaking News

India Football: “ভারতীয় ফুটবলে কালোদিন”, ভারতীয় ফুটবলকে নির্বাসিত করল ফিফা, সঙ্কটে সুনীলদের ভবিষ্যৎ

ভারতীয় ফুটবল এখন ভয়াবহ সংকটে। ভারতীয় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ) ফিফা কর্তৃক বহিষ্কৃত হয়েছে। ‘তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের’ কারণে শাস্তি ঘোষণা করেছে ফিফা। এর ফলে অনূর্ধ্ব-১৭ নারী বিশ্বকাপ ফুটবল সংস্থা যেমন বড় অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে, তেমনি সুনীল ছেত্রীর ফুটবল ভবিষ্যত অন্ধকারে চলে যায়। ফিফা এক বিবৃতিতে বলেছে, “এআইএফএফ এখন প্রশাসক কমিটির কর্তৃত্বাধীন। পরিবর্তে, যেদিন থেকে নির্বাচিত কমিটি এআইএফএফ-এর দৈনন্দিন কার্যকারিতা দেখতে শুরু করবে, সেদিন থেকে বহিষ্কারের শাস্তি তুলে নেওয়া হবে।”১১ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ভারতে মহিলাদের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে৷ যদি এর মধ্যে পরিস্থিতির পরিবর্তন না হয় তবে এই প্রতিযোগিতাটি ভারত থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে৷ ফিফা এক বিবৃতিতে বলেছে, “বহিষ্কারের অর্থ হল ভারত অক্টোবরে মহিলাদের অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপ আয়োজন করতে পারবে না।” এই প্রতিযোগিতা নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে তা নিয়ে ভাবছে ফিফা।অবশেষে, ফিফা লিখেছে যে তারা ভারতের কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রকের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ করছে। তাদের আশা, ইতিবাচক সমাধান এখনও সম্ভব।মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও ফেডারেশনের সভাপতি পদে বসেছিলেন প্রফুল্ল প্যাটেল। সুপ্রিম কোর্টে মামলা হয়। দেশের সর্বোচ্চ আদালত চলতি বছরের মে মাসে ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটি ভেঙে দিয়েছে। ভারতীয় ফুটবল প্রশাসকদের তিন সদস্যের কমিটি দ্বারা পরিচালিত হয়। একইসঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব ফেডারেশন নির্বাচন করার কথা বলা হয়েছে।এদিকে, সিওএ আদালতে অভিযোগ করেছে যে প্যাটেল এখনও পেছন থেকে ফেডারেশনের কাজে হস্তক্ষেপ করছেন। সিওএ তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনেছে। সে সময় আদালতকে জানানো হয়, শিশুদের বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজন করার কথা ভারতের। তার আর মাত্র দুই মাস বাকি। ফিফা সিওএকেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ফেডারেশন নির্বাচন করলেই ভারতকে বিশ্বকাপ আয়োজনের অনুমতি দেওয়া সম্ভব হবে।গোটা বিষয়টি এখনও সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন। ফেডারেশন নির্বাচনের বিষয়ে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের সিদ্ধান্তের উপর ভারতীয় ফুটবলের ভবিষ্যৎ অনেকটাই নির্ভর করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.