Breaking News

Primary TET|| প্রাথমিকের টেট নিয়ে বৃহস্পতিবারই বড় সিদ্ধান্ত, নবান্নে বৈঠক ডাকলেন মুখ্যসচিব

#কলকাতাঃ প্রাথমিকের টেট নিয়ে এ বার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসতে চলেছে নবান্নের শীর্ষ মহল। বৃহস্পতিবার বিকেলেই মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদির নেতৃত্বে হবে এই বৈঠক। বৈঠকে সব জেলার জেলাশাসক, পুলিশ সুপার, পুলিশ কমিশনার এবং শিক্ষা দফতরের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকদের উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ওই বৈঠকে কয়েকটি দফতরের সচিবদেরও উপস্থিত থাকার কথা বলা হয়েছে।

মূলত আগামীকালকের বৈঠকে প্রাথমিকের টেট নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিতে পারেন মুখ্যসচিব, এমনটাই মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি আগামিকালের বৈঠকে জেলাগুলির তরফে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে এই পরীক্ষা  কেন্দ্র করে, সে বিষয়েও বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হতে পারে।

আরও পড়ুনঃ সর্দি-কাশি কাছে ঘেঁষবে না, বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা! ঠিক কখন কী চা খাবেন?

পঞ্চায়েত ভোটের আগে রাজ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষার এই প্রাথমিকের টেট। সেক্ষেত্রে এই বৈঠক থেকে পরীক্ষা সংক্রান্ত একাধিক নির্দেশ জেলাগুলিকে দিতে পারেন মুখ্য সচিব বলে মনে করা হচ্ছে।অন্যদিকে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিকের পর এ বার প্রাথমিকের টেটেও পরীক্ষা চলাকালীন সময় ইন্টারনেট বন্ধ রাখার পক্ষে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এই মর্মে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তরফে রাজ্যে স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে একটি বিশেষ আবেদন করা হয়েছে। মনে করা হচ্ছে আগামিকালের বৈঠকে এই সংক্রান্ত বিষয় নিয়েও আলোচনার সম্ভাবনা আছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর সেই আবেদনেই ইন্টারনেট বন্ধ রাখার কথা পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে বলা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র সচিবকে অবশ্য প্রত্যেকটি পরীক্ষা কেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায় ইন্টারনেট বন্ধ রাখার কথা বলা হয়নি পর্ষদের তরফে। শুধুমাত্র স্পর্শকাতর এলাকায় ইন্টারনেট বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। সূত্রের খবর, সেই স্পর্শকাতর এলাকার সংক্রান্ত পরীক্ষা কেন্দ্রের তালিকা ইতিমধ্যেই তৈরি করতে শুরু করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

আরও পড়ুনঃ মুখে না বললেও, ছিল সময়ের অপেক্ষা! ঐন্দ্রিলার প্রয়ানের আগেই ফেসবুকের ছবি কালো করেন জীতু

রাজ্যের মোট ১,৪৫৩ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রাথমিকের টেট নেওয়া হবে। রাজ্যজুড়ে ৬,৯০,৯৩১ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দেবেন প্রাথমিকের টেটে। পরীক্ষা কেন্দ্রে নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই ইন্টারনেট বন্ধ রাখার আবেদন পর্ষদ জানিয়েছে রাজ্য স্বরাষ্ট্র সচিবকে বলেই সূত্রের খবর। এর আগে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়েও ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছিল।

কিন্তু সাম্প্রতিক সময় হাইকোর্টের নির্দেশে সেই ইন্টারনেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে রাজ্য। তারপর অবশ্য উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় এ বছর ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়নি। সেক্ষেত্রে অবশ্য পর্ষদের যুক্তি প্রত্যেকটি পরীক্ষা কেন্দ্রে ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হবে না। শুধুমাত্র স্পর্শকাতর এলাকাতেই ইন্টারনেট বন্ধ রাখার কথা ভাবা হয়েছে।

যদিও এই বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি গৌতম পালের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। ইতিমধ্যেই প্রাথমিকের টেটকে নির্বিঘ্নে পরিচালনা করার জন্য ১৬ দফা গাইডলাইন জেলায় জেলায় পাঠানো হয়েছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে। সেই গাইডলাইনে ১৪৪ ধারা জারির কথা বলা হয়েছে পরীক্ষা কেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায়। সবমিলিয়ে আগামী ১১ ডিসেম্বরের পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বিশেষভাবে সতর্ক প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Shubhagata Dey

First published:

Tags: Primary TET, Teacher Recruitment


Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *